প্রতিবন্ধীকে ধ**র্ষণ, অবশেষে ধ**র্ষককে আগুনে পুড়িয়ে মা*রল জনতা

বনে কাঠ সংগ্রহ করতে গিয়েছিল এক মানসিক প্রতিবন্ধী কিশোরী। সে সময় ওই কিশোরীকে ধ’র্ষণ করা হয়।
অবশেষে এই ধ’র্ষণ অ’প’রাধে অ’ভিযুক্তের শরীরে আ’গুন দিয়ে পুড়িয়ে হ’ত্যা করেছে উত্তেজিত জনতা।
সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকার লিমপোপো শহরের মুহোভয়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। দেশটির পু’লিশের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ডেইলি মেইল জানায়, এক ব্যক্তির বি’রুদ্ধে মানসিক প্রতিবন্ধী কিশোরী ধ’র্ষণের অ’ভিযোগ উঠেছিল।
এ ঘটনায় গ্রামের উত্তেজিত জনতা ওই ধ’র্ষককে আ’গুনে পুড়িয়ে হ’ত্যা করে। পরে ওই ব্যক্তির ম’রদেহের অবশিষ্ট অংশ উ’দ্ধার করে পু’লিশ।
দেশটির সংবাদমাধ্যম সোয়েতান লাইভ জানায়, মুহোভয়া গ্রামের স্থানীয় সম্প্রদায়ের লোকজন মানসিক প্রতিবন্ধী ১৭ বছরের এক কিশোরীকে ধ’র্ষণের অ’ভিযোগে এক ব্যক্তিকে চিহ্নিত করে। পরে তাকে পুড়িয়ে মা’রে।

পু’লিশের মুখপাত্র কর্নেল মোতসে এনগোপে স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানান, ওই মানসিক প্রতিবন্ধী কিশোরী গ্রামের কয়েকজন নারীর সঙ্গে কাঠ সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন। সে সময়
ওই ব্যক্তি তাদের ওপর হা’মলা চালায়। অন্য নারীরা পালিয়ে গেলেও ওই কিশোরী পেছনে পড়ে যায়। পরে অ’ভিযুক্ত ব্যক্তি মানসিক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে বনের ভেতর একা পেয়ে ধ’র্ষণ করে।

কিশোরীকে ধ’র্ষণের কথা শোনার পর বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য বৈঠকে বসেন গ্রামবাসী। সোমবার ওই ব্যক্তিকে শনাক্ত করা হয়। পরে তাকে ধরে এনে মা’রধরের পর আ’গুন লাগিয়ে হ’ত্যা করে উত্তেজিত জনতা।
এ ঘটনায় পু’লিশ একটি হ’ত্যা মা’মলা দায়ের করেছে। তবে এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রে’ফতার কিংবা কোনো সন্দেহভাজনকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *